গাইবান্ধায় সম্প্রচার বন্ধের আল্টিমেটাম ক্যাবল অপারেটরদের

গাইবান্ধায় সম্প্রচার বন্ধের আল্টিমেটাম ক্যাবল অপারেটরদের

গাইবান্ধায় সোয়েব ক্যাবল নেটওয়ার্ক এর টেলিভিশন সম্প্রচার বন্ধের আল্টিমেটাম দিয়েছেন অন্যান্য ক্যাবল অপারেটররা। শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ আল্টিমেটাম দেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কচুয়া ইউনিয়নের উল্যা বাজারে অবৈধভাবে কন্ট্রোল রুম খুলে গাইবান্ধা কেন্দ্রীয় ক্যাবল নেটওয়ার্কের আওতাধীন বৈধ ক্যাবল অপারেটরের ৩ কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবার তার কেটে নিয়ে যায়। এর প্রতিকার দাবিতে সাঘাটা এলাকার বিপক্ষ ক্যাবল নেটওয়ার্ক টেলিভিশন সম্প্রচার বন্ধ করে দেন অপারেটররা। ফলে ওই এলাকার প্রায় ৫০ হাজার দর্শক শুক্রবার থেকে টিভি দেখতে পারছেন না। সংবাদ সম্মেলনে ক্যাবল অপারেটররা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করে শনিবারের মধ্যে সমস্যার সমাধান না হলে গাইবান্ধা জেলার কেন্দ্রীয় ক্যাবল নেটওয়ার্কের আওতাধীন সকল ক্যাবল অপারেটর ক্যাবল নেটওয়ার্ক টেলিভিশন সম্প্রচার বন্ধের আল্টিমেটাম দেয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সাঘাটার ক্যাবল অপারেটর আব্দুর রাজ্জাক (গাইবান্ধা কেন্দ্রীয় ক্যাবল নেটওয়ার্কের লাইসেন্স নম্বর সিও ৪০৫, রেজিঃ নং ১৩৬০, তারিখ ২৮/০১/১৮, এলাকা সাঘাটার ভরতখালি ইউনিয়ন, প্রতিষ্ঠান সোয়েব এন্টারপ্রাইজ)। সংবাদ সম্মেলনে তিনি উল্লেখ করেন, তিনি দীর্ঘদিন থেকে ফুলছড়ি উপজেলা ও গাইবান্ধা সদরের কিছু এলাকায় এবং পলাশবাড়ি উপজেলার হরিনাথপুর পর্যন্ত ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসা করে আসছেন। হঠাৎ করে ভরতখালি এলাকার জাহেদুল ইসলামের ছেলে জিকো মিয়া প্রতিহিংসামূলক উল্যা বাজারে নতুন একটি কন্ট্রোল রুম তৈরী করে। এরপর থেকেই জিকো মিয়ার সন্ত্রাসী লোকজন ওই বৈধ ক্যাবল নেটওয়ার্কের বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে ১৩টি লুড মেশিন খুলে নিয়ে নেয় এবং উল্যা বাজার এলাকার ৩ কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবারের তার কেটে নিয়ে যায়। এছাড়া গটিয়া পয়েন্টে তার ও লুড মেশিন কেটে নিয়ে যায়। এব্যাপারে প্রতিবাদ জানালে জিকো মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে এবং ওই এলাকায় ডিসের ব্যবসা বন্ধ করে দেয়। বিষয়টি সাঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানার অফিসার ইনচার্জকে মৌখিকভাবে অবহিত করা হলেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং বিচার চেয়ে কচুয়ায় অবস্থিত কেন্দ্রীয় ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ক গত শুক্রবার থেকে এখন পর্যন্ত ক্যাবল টেলিভিশন সম্প্রচার বন্ধ রেখেছে। ফলে ওই এলাকার প্রায় ৫০ হাজার দর্শক চরম বিপাকে পড়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন জেলা কেন্দ্রীয় ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্কের সভাপতি রেজাউর রহমান ডিউক, সহ-সভাপতি এসকে তাসের আলী, সাধারণ সম্পাদক মো. রমজান আলী, খায়রুল ইসলাম প্রমুখ। (সূএ -Gaibandha.news)
আরো খবর পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Facebook Comments

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

© All rights reserved © 2019 ReviewsBangla.Com
Wishlist 0
Open wishlist page Continue shopping